এক দিকে দেশ জুড়ে করোনা সংক্রমণ, অপর দিকে চীনের আগ্রাসী আচরণ। এর মধ্যেই ভারতে উদ্বোধন হচ্ছে এশিয়ার সর্ব বৃহৎ সোলার প্লান্টের।


ভারতের মধ্যপ্রদেশ রাজ্যের রেওয়া জেলায় এই ‘রেওয়া আল্ট্রা সোলার পাওয়ার প্রকল্প’ টি গড়ে তোলা হয়েছে, যেখানে সৌরশক্তিকে কাজে লাগিয়ে প্রতিদিন ৭৫০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করা যাবে এবং প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করতে ৪৫০০ টাকা খরচ হবে। প্রায় ৫০০ হেক্টর জমির উপর নির্মিত হওয়া এই প্রকল্পে ২৫০ মেগাওয়াটের তিনটি সৌরবিদ্যুৎ উৎপাদক ইউনিট রয়েছে। এটি ‘ক্লিন টেকনোলজি ফান্ড ইন্ডিয়া’-র তৈরি করা প্রথম সৌর প্রকল্প।এছাড়াও এই প্রকল্পের সাথে যুক্ত আছে ‘পাওয়ার ম্যানেজমেন্ট কোম্পানি’, মধ্যপ্রদেশ ও দিল্লি মেট্রোরেল কর্পোরেশন। প্রকল্পটি থেকে যে বিদ্যুৎ উৎপাদন করা হবে তার বেশিরভাগই সরবরাহ করা হবে দিল্লি মেট্রোরেল কর্পোরেশনে, ২৪ শতাংশ দেওয়া হবে গণ পরিবহন সেক্টরে এবং বাকিটা বিভিন্ন রাজ্যে ভাগ করে দেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, গত ২০১৭ সালের ডিসেম্বর মাসে মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাম সিং চৌহান এই সৌরবিদ্যুৎ পার্কের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন। আজ ১০ জুলাই, ২০২০ ইং তারিখ শুক্রবার সকাল ১১ টার সময় ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি মোবাইল কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রকল্পটির উদ্বোধন করেন।

শিল্পোন্নত দেশগুলোতে দিন দিন যেভাবে কার্বন নিঃসরণ বৃদ্ধি পাচ্ছে, তাতে করে সারা বিশ্ব এক বিশাল হুমকির দিকে এগোচ্ছে। সেই জায়গা থেকে সৌর শক্তিকে কাজে লাগিয়ে এত বড় একটা প্রকল্প বাস্তবায়ন করাকে অনেক পরিবেশবিদই সাধুবাদ জানিয়েছে। এই সৌর বিদ্যুৎ প্রকল্প থেকে উৎপাদিত বিদ্যুৎ প্রতিবছর প্রায় ১৫ লক্ষ টন কার্বণ হ্রাস করবে। এসব দিক বিবেচনা করে এই প্রকল্পটিকে ‘ওয়ার্ল্ড ব্যাংক প্রেসিডেন্ট’ পুরুষ্কারে ভূষিত করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here